Unnyan Bitarka

প্রকাশকের কথা


“হ্যাঁ, শ্রী প্রভাত পট্টনায়কের বক্তব্য অামি দেখেছি। শিল্পয়ন সম্পর্কে তিনি যা বলেছেন তার সঙ্গে অামার গুরুতর মতপার্থক্য অাছে — অ্যাকাডেমিক ব্যক্তিবর্গ বাস্তব জগতটা বোঝেন না”। ৩০ জুন সিএনএন-অাইবিএন-এর সঙ্গে একটি সাক্ষাতকারে বললেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য।


কী এমন লিখেছিলেন সিপিএমের সবচাইতে প্রতিষ্ঠিত অর্থনীতিবিদ, যিনি সর্বভারতীয় স্তরে পার্টি ক্লাসও নিয়ে থাকেন এবং বর্তমানে কেরলে রাজ্য পরিকল্পনা বোর্ডের চেয়ারপার্সন, যে তাঁর বিরুদ্ধে এভাবে ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় মুখ খুলতে হল বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে।


শ্রী পট্টানায়কের উল্লিখিত লেখাটি প্রকাশিত হয়েছিল ইপিডব্লিউ পত্রিকায় ২৫ মে ২০০৭ সংখ্যায়। অমরা নিবন্ধটি এখানে পুনঃপ্রকাশ করলাম, সঙ্গে দিলাম তাঁর অার একটি এবং অশোক মিত্রের একটি রচনার কিছু অংশ। এবং অবশ্যই শ্রী ভট্টাচার্য ও নিরুপম সেনের লেখা ও সাক্ষাতকারের গুরুত্বপূর্ণ অংশ। ইপিডব্লিউ পত্রিকায় প্রকাশিত “জনৈক সিপিএম সমর্থকের” একটি লেখাও কিছুটা সংক্ষিপ্ত অাকারে অামরা ছাপিয়ে দিলাম। উন্নয়ন প্রসঙ্গে অামাদের বক্তব্যও একটি প্রবন্ধ অাকারে অামরা হাজির করেছি, পুনঃপ্রকাশ করেছি সপ্তম বামফ্রন্ট ক্ষমতাসীন হওয়ার পরক্ষণে রচিত অার একটি প্রাসঙ্গিক প্রবন্ধ। উদ্দেশ্য একটাই। পশ্চিমবঙ্গ তথা ভারতের শিল্পায়ন/উন্নয়নের পথ ও প্রকরণ নিয়ে বামপন্থী বিতর্কের গভীরে প্রবেশ করা।


এই বিতর্ক নিছক অর্থশাস্ত্রী ও রাজনীতিবিদদের কচকচি নয়। রাজ্যবাসী ও দেশবাসীর ভালো-মন্দ একেবারে সরাসরি এর সঙ্গে জড়িত। তাই অাপনিও এতে অংশ নিন। অাপনার মূল্যবান মতামত পাঠিয়ে এই গুরুত্বপূর্ণ বিতর্ককে সমৃদ্ধ করুন, সঠিক সমাধানে পৌঁছাতে সাহায্য করুন।


পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য কমিটি


সিপিঅাই(এমএল) লিবারেশন


অাগস্ট ২০০৭